কিভাবে পেনড্রাইভ বুটেবল করা যায়?

হ্যালো বন্ধুরা আজকের পোস্টে আমি আপনাদের বলব কিভাবে আপনার আপনাদের বাড়িতে ব্যবহৃত পেনড্রাইভকে বুটেবল পেনড্রাইভ ব্যবহার হিসেবে ব্যবহার করতে পারবেন।

বুটেবল পেনড্রাইভ দিয়ে উইন্ডোজ বুট করতে পারবেন অর্থাৎ আপনি সাধারণভাবে উইন্ডোজ কম্পিউটার দেওয়ার সময় ডিস্ক ব্যবহার করেন কিন্তু অনেকের বর্তমান সময়ে কম্পিউটারের সিডি রাইটার থাকেনা। এর কারনে পেনড্রাইভ দিয়ে উইন্ডোজ দেয়ার প্রয়োজন পড়ে। সাধারণভাবে আমরা জেভাবে কপি করি উইন্ডোজ এর ফাইল পেনড্রাইভে কপি করলে হয়না। আপনার হার্ডডিস্ক ফরম্যাট অনুযায়ী এবং আপনার আপনাকে উইন্ডোজ কম্পিউটারের বায়োস সেটিং অনুযায়ী বুট করতে হবে।

আই এস ও ফাইল ডাউনলোডঃ

অফিশিয়াল উইন্ডোস ফাইল ডাউনলোড করার জন্য আপনি মাইক্রো সফটওয়্যার অফিশিয়াল ওয়েবসাইট থেকে আইএসও ফাইল ডাউনলোড করতে পারবেন। বর্তমান যুগে উইন্ডোজ টেন ব্যাবহার করা সবচেয়ে ভালো কারণে এটি নিয়মিত সিকিউরিটি আপডেট পায় এবং এতে অ্যান্টিভাইরাস সাপোর্ট আছে ।. অর্থাৎ আপনি যদি উইন্ডোজ টেন এর সর্বশেষ ভার্সন ব্যবহার করেন এবং নিয়মিত আপনার অপারেটিং সিস্টেমটি আপডেট রাখেন তাহলে আপনাকে কোন অ্যাডিশনাল অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার ব্যবহার করতে হবে না কারণ উইন্ডোজ টেন এর উইন্ডোজ ডিফেন্ডার অনেক ভালো কাজ করে নেওয়ার এবং হার্মফুল ওয়েবসাইট এর বিরুদ্ধে।

উইন্ডোজ ফাইল ডাউনলোড করা শেষ হলে এখন আপনার কাজ হল উইন্ডোজ ফাইলটিকে আপনার পেনড্রাইভে বুট করা বুট করার জন্য আপনার একটি ছোট্ট অ্যাপ্লিকেশন এর প্রয়োজন পড়বে অ্যাপ্লিকেশনটি আপনি যে কোন অপারেটিং সিস্টেমে ব্যবহার করতে পারবেন। অবশ্যই আপনি কম্পিউটার ব্যবহার করবেন ফোনে এই অ্যাপ্লিকেশনটি সাপোর্ট করেনা। অ্যাপ্লিকেশন টি নাম RUFUS । এটি একটি ওপেনসোর্স সিস্টেম যেটির মাধ্যমে আপনি উইন্ডোজ দিয়ে খুব সহজেই বুট করতে পারবেন শুধু দুই ক্লিকের ব্যাপার।

RUFUS অ্যাপ্লিকেশনটি ডাউনলোড করার পর আপনি এটি run as administrator করে ওপেন করে নিবেন ।তারপর একটি পেনড্রাইভ আপনার কম্পিউটারে সংযুক্ত করবেন যে কোন ইউএসবি পোর্টে।. খেয়াল রাখবেন আপনার পেনড্রাইভের যেন কোনো গুরুত্বপূর্ণ ডাটা না থাকে কারণ উইন্ডোজ বুট করার সময় পেনড্রাইভ টি সম্পূর্ণ বিলীন হয়ে যায় অর্থাৎ আগের সব ডাটা চলে যায় এবং নতুন করে উইন্ডোজ ডাটাগুলো সেখানে ট্রান্সফার হয়ে যায়।

উপরের ছবিতে চিহ্নিত করা জায়গাটিতে ক্লিক করে আপনি আপনার উইন্ডোজের আইএসও ফাইল টি সিলেক্ট করে দিন. আমাদের ক্ষেত্রে আমরা একটু আগে যে উইন্ডোজ ফাইলটি ডাউনলোড করলাম মাইক্রোসফ্ট অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে সেই আইএসও ফাইল টা সিলেক্ট করে দেবো এটা সব ক্ষেত্রেই করতে হবে।

একটা বিষয় বলতে ভুলে গেছি আইএসও ফাইল ডাউনলোড করার সময় একটা বিষয় খেয়াল রাখবেন যে আপনার কম্পিউটারের হার্ডওয়ার এটি 32 বিট নাকি 64 বিট.। বর্তমান যুগের সকল কম্পিউটারে প্রায় 64 বিট হয়ে থাকে তবে যদি আপনার পুরনো আমলের কম্পিউটার হয়ে থাকে তাহলে একবার চেক করে দেখবেন যে আপনার কম্পিউটারটি 64-bit নাকি 32bit।

আরো পড়ুনঃ-

রুপোশ অ্যাপ্লিকেশন থেকে আপনাকে বলে দিতে হবে যে আপনি কোন ফরম্যাটে উইন্ডোজটি বোর্ড করতে চান আপনার পেনড্রাইভে এখানে শুধু মাত্র দুটি অপশন আছে জিপিটি নাকি এম বি আর। আপনার কম্পিউটার টি জিপিটি নাকি এমবিআর চেক করার জন্য আপনি প্রথমে স্টার্ট মেনু ত ক্লিক করবেন তারপর কিবোর্ডে টাইপ করবেন disk management তারপর আপনি সেখান থেকে ডিস্ক মানেজমেন্ট ওপেন করে আপনার হার্ডডিস্ক এর কনফিগারেশন দেখতে পারবেন । . এখান থেকে আপনি নিজের যে হার্ডডিক্স টা তে উইন্ডোজ দেবেন সেই হার্ডডিক্সের উপর রাইট ক্লিক করে প্রপেরটিজ এ ক্লিক করবেন। আপনি সেখান থেকে দেখতে পারবেন আপনার কম্পিউটারের হার্ডডিক্স টি এমবিআর নাকি জিপিটি সেখানে যদি এমবিএ লেখা থাকে তাহলে RUFUS অ্যাপ্লিকেশনটিতে আপনি MBR সিলেক্ট করে দিবেন আর সেখানে যদি GPT লেখা থাকে তাহলে আপনি GPT করে দিবেন। নতুন যুগের বেশিরভাগ কম্পিউটারে MBR উইন্ডোজ বুট করতে হয়।

Sourov Biswashttp://bongofix.com
টেকনলজি কে ভালোবাসি। আর নিজে যা জানি তা অন্যকে শেখাতে ভালোবাসি

Related Articles

1 মন্তব্য

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

আমাদের ফলো করুন

532লাইকমত
2,005ফলোয়ারঅনুসরণ করা
715ফলোয়ারঅনুসরণ করা

সাম্প্রতিক পোস্ট